অন্নসংস্থানের তাগিদে খাটতে যাওয়া ভিন রাজ্যে পুরুলিয়ার মানুষদের অবস্থা শোচনীয়

নিজস্ব সংবাদদাতা, পুরুলিয়া: সারাদেশে লকডাউন
কিন্তু অন্নসংস্থানের তাগিদে খাটতে যাওয়া ভিন রাজ্যে পুরুলিয়ার মানুষদের অবস্থা যে শোচনীয় তা ধরা পড়ল এবার।

লকডাউন ঘোষণার পূর্বেই তারা কর্মক্ষেত্র ব্যাঙ্গালোর থেকে বেরিয়ে পড়ে। কিন্তু গন্তব্য যে অনেক দূর,,,,,,,,, জন্মভূমি পুরুলিয়া।

করোনা ভাইরাস আতঙ্ক তাই এই গরীব মানুষদের কথা মনে রাখেনি তাদের মনিব বা ঠিকাদার।
হাতে টাকা নেই ,নেই খাবার।

কোনোক্রমে খড়গপুর পৌঁছাতে পারলেও যাতায়াতের মাধ্যম বিচ্ছিন্ন গোটা দেশে তা হাড়ে হাড়ে টের পায় তারা।

প্রত্যন্ত জঙ্গলমহলের কোটশিলা ও ঝালদার সাত যুবক রাজপথ সঙ্গী করে গত রবিবার থেকে হাঁটতে শুরু করে, তাদের পাথেয় ছিল কয়েকটা মুড়ি প্যাকেট ও একটা বিস্কুট প্যাকেট। বাঁকুড়াতে কোন সহৃদয় ব্যক্তি তাদের হাতে 60 টাকা তুলে দেন। কিন্তু টাকা দিয়ে কি হবে, দোকান কৈ? তারা বাংলা সাহিত্যের সেই গুপ্তধনের কথা পড়ে নি কোনোদিন যা আজ বাস্তব এই মহামারীর অঙ্কনে।

হাঁটতে হাঁটতে তারা পুরুলিয়ার হুড়াতে পৌঁছালে নজরে আসে এক স্থানীয় যুবকের কিছু মুড়ি পাই তারা অনাহারে অভুক্ত ক্লান্ত শরীর নিয়ে বসে পড়ে। খবর যায় হুড়া থানাতে।

সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে ছুটে আসেন পুরুলিয়া পুলিশ প্রশাসন। হুড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি প্রসেনজিৎ মাহাতো তাদেরকে খাবার ও পানীয় জলের ব্যবস্থা করে দেন। রাত্রি সাড়ে আটটার পর অ্যাম্বুলেন্সে করে নিজেদের গ্রামে পৌঁছে দেওয়া হয় তাদের। খুঁজে পায় তারা মাতৃভূমির সেই আনন্দলোক।

শেয়ার করুন