আজও মহানায়কের স্মৃতি আঁকড়ে হাওড়ার জগৎবল্লভপুরবাসী


প্রসেনজিৎ পান্ডা,হাওড়া: আজ মহানায়ক উত্তম কুমারের ৪০ তম প্রয়াণ দিবস। এতগুলো বছরের স্মৃতি আঁকড়ে ধরে আজও বসে থাকে “এব্যাথা,কী যে ব্যাথা “এই গানের কন্ঠ মেলানো মহানায়ক উত্তম কুমারের সাদা কালো ছবির দিকে তাগিয়ে। ধন্যিমেয়ে,হার মানা হার,বন পলাশীর পদাবলী এই সমস্ত ছবিগুলির সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে মহানায়ক উত্তম কুমারের পাশাপাশি সুচিত্রা সেন,সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়,জয়া বচ্চন,সুখেন দাস,রবি ঘোষ,ভানু বন্দোপাধ্যায় সহ অন্যান্যরা কে আসেননি বর্তমানে গ্রামীণ হাওড়ার জগৎবল্লভপুরের গোহালপাতা গ্রাম। ঐ গ্রামের বাসিন্দা তৎকালীন চন্ডীমাতা ফিল্মসের কর্নধার সত্যচরন খাঁ নিজের বাড়িকে বানিয়ে ফেলেছিলেন প্রাসাদ প্রমান,যা তৎকালীন পাঁচতারা হোটেলকেও হারমানায়। এই সত্যচরন হাত ধরে একদম খুব কাছ থেকেই জগৎবল্লভপুরবাসী দেখেছিলেন আমাদের মহানায়ককে। আজ সত্যচরন বাবুর বাড়ি সহ বেশ কিছু অংশ পরিবারের উত্তরসূরিরা গ্রামের উন্নয়নের জন্য শিক্ষা দপ্তরকে দেওয়ায় সেখানে গড়ে তোলা হয়েছে শোভারানি স্মৃতি মহাবিদ্যালয় ও প্রাইমারী টিচার্স টেনিংস্কুল। স্মৃতি বয়ে চলা সত্যচরন খাঁ বাবুর বাড়ি পলেস্তারার চাঙর খসে পড়ছে,দেওয়াল জুড়ে গজিয়ে ওঠা অশ্বথ,বট। ইতিমধ্যে বহুবার এলাকাবাসীর তরফে বাড়িটি পূর্ণনির্মান করে সংরক্ষনের দাবী জানানো হলেও গুরুত্ব দেয়নি বাম,ডান কোনো সরকার।

শেয়ার করুন