আজ ২১জুন রবিবার সূর্যগ্রহন। ভুলেও করবেন না এই কাজ গুলো,না হলে হতে পারে সর্বনাশ।

যে কোন গ্রহন মানব জীবনে যথেষ্ট প্রভাব ফেলে। তা সে চন্দ্রগ্রহন হোক বা সূর্যগ্রহন।তবে সূর্যগ্রহন সব থেকে বেশি প্রভাব ফেলে মানব জীবনে। কারন সমস্ত শক্তির উৎস হল সূর্য। আর যখন সূর্যগ্রহন লাগে তখন তার প্রভাব প্রত্যেকটি রাশির উপর পড়বে।
পরবর্তি পূর্ণগ্রাস ২০ মার্চ ২০৩৪

আমাদের প্রাচীন শাস্ত্রে উল্লেখ রয়েছে সূর্যগ্রহনের সময় কিছু কাজ আছে। সেইগুলো ভুলেও করবেন না। না হলে হতে পারে সর্বনাশ।

২১ শে জুন সূর্যগ্রহন অর্থাৎ আষাঢ় মাসে কৃষ্ণপক্ষের আমাবস্যা তিথিতে রবিবারে এই সূর্য গ্রহন শুরু হচ্ছে সকাল ৯.১৫ মিনিট থেকে এবং গ্রহন সমাপ্তি ৩.০৪ মিঃ।অর্থাৎ প্রায় ৬ ঘন্টা ধরে এই সূর্য গ্রহন চলবে।
এই সূর্য গ্রহনের যে আগের ১২ ঘন্টা সময়,এবং সূর্য গ্রহনের পরে ১২ ঘন্টা সময়,এই সময় কালকে বলা হয় সুতক সময়। শাস্ত্রে এই সময়কে অশুভ মনে করা হয়। এই সময় শুভ কাজ যেমনঃ বিবাহ,উপনয়ন,গৃহ প্রবেশ,বাহন কেনা, নতুন কিছু কেনা,এই সমস্ত কিছুর ক্ষেত্রে কিন্তু নিষেধ করা আছে।
যে বিষয় গুলি সম্পর্কে সর্তক থাকবেন তা হল।

(১) সকলের মনের বাসনা থাকে সূর্য গ্রহন দেখার।তবে খালী চোখে সূর্য গ্রহন দেখতে যাবেন না।তবে বাড়ির গর্ববতী মহিলা এবং ছোট বাচ্চাদের কিন্তু গ্রহন দেখতে দেবেন না। আর সূর্য গ্রহন দেখতে কালো চশমা বা বড় পাত্রে জল দিয়ে জলের প্রতিবিম্ব সাহায্য দেখতে পারেন।

(২) সূর্য গ্রহনের সময় কখনও কোন ধারালো অস্ত্র ব্যবহার করবেন না।যেমনঃছুরি,কাচি,ব্লেড,বটি,দা, এই ধরনের কোন ধারালো অস্ত্র ব্যবহার করবেন না।

(৩) সূর্য গ্রহনের সময় আগুনের ব্যবহার করবেন না।সূর্য গ্রহন চলাকালীন সময় আগুনের ব্যবহারে বিপদ ডেকে আনে।তাই গ্রহনের পূর্বে রান্নার কাজ সম্পন্ন করবেন।

(৪) সূর্য গ্রহনের সময় কোন অবস্থায় আহার গ্রহন করিবেন না। গ্রহনের পূর্বে আহার করতে পারেন। তবে ছোট বাচ্চা,গর্ববতী মহিলা,ও অসুস্থ রোগীদের জন্য গ্রহন লাগার পূর্বে খাবার ও পানীয় জলে তুলসী পাতা দিয়ে রাখবেন। সম্ভব হলে এই সময় আহার করবেন না।

(৫) গ্রহন চলাকালীন সময় কোন প্রকার বৃক্ষ স্পর্শ করবেন না। তুলসী পাতা গ্রহনে আগে তুলে রাখুন।

(৬) গ্রহনকে অশুভ বিবেচনা করা হয়েছে।এই সময় কু- চিন্তা,কু- কথা,খারাপ আচারন,ঝগড়াঝাটি, ঝামেলা প্রভৃতি সময় এড়িয়ে চলবেন। এই সময় দান,ধ্যান,তপ,যজ্ঞ প্রদান করুন।

(৭) গ্রহন চলাকালীন সময় দেবতা মূর্তি বা বিগ্রহে স্পর্শ করবেন না।

(৮) গ্রহন চালাকালিনী সময় স্নান করবেন না। গ্রহনের পূর্বে স্নান করে নেবেন নয়তো পরে।

সূর্যগ্রহন দৃশ্য, তাই সাবধানে এবং নিয়মগুলো মেনে চলবেন।

– ওঁ নমো ব্রাহ্মণ্যদেবায় গো- ব্রাহ্মণ্যহিতায় চ ।
– জগদ্ধিতায় কৃষ্ণায় গোবিন্দায় নমো নমঃ ।।
– পাপোহহং পাপকর্মাহং পাপাত্মা পাপসম্ভবঃ ।
– ত্রাহি মাং পুন্ডরীকাক্ষং সর্বপাপহরো হরি ।।

হে কৃষ্ণ করুনাসিন্ধু,
দীনবন্ধু জগৎপথে,
গোপেশ গোপিকাকান্ত
রাধাকান্ত নমস্তুতে

ঈশ্বর পরম করুনাময়
ঈশ্বর সকলের মঙ্গল করুন

রামকৄষ্ণ চ্যাটার্জি,এস প্লাস নিউজ।

শেয়ার করুন