আমফান দূর্নিতী নিয়ে সরব মেদিনীপুর জেলা বিজেপি


নিজস্ব সংবাদদাতা, পূর্ব মেদিনীপুর:সুপার সাইক্লোন আমফান রাজ্যের একাধিক জেলায় তান্ডব চালানোর পর, রাজ্যের ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার গুলোর লক্ষ্যে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে আমফানে বাড়িঘর পুরোপুরি ক্ষতিগ্রস্ত হলে ক্ষতিগ্রস্ত মালিককে ২০ হাজার সরকারি ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। অভিযোগ, অনেক ক্ষেত্রেই প্রকৃত উপভোক্তারা বঞ্চিত হয়েছেন এই আওতা থেকে । অথচ যারা পেয়েছেন তাদের মধ্যে অধিকাংশই “ভুয়ো” ক্ষতিগ্রস্ত। প্রসঙ্গত, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দীগ্রাম, মহিষাদল, হলদিয়া, চন্ডীপুর, ভগবানপুর, কাঁথি সহ বেশ কিছু বিধানসভা এলাকার কিছু তৃণমূল কর্মীকে দল থেকে বহিষ্কার করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। পাশাপাশি অনেকে টাকাও প্রশাসনের কাছে ফেরত দিয়েছেন । তবে আমফান ক্ষতিপূরণে শাসকদলের দুর্ণীতির অভিযোগে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা সর গরম। অনিয়মের বেশ কিছু অভিযোগ জমা পড়েছে প্রশাসনের দপ্তরে। এবার তালিকায় নতুন সংযোজন পূর্ব মেদিনীপুর জেলার এগরা ১ ব্লকের পাঁচরোল গ্ৰাম পঞ্চায়েত। অভিযোগ,তৃণমূল পরিচালিত এই পঞ্চায়েতে ক্ষতিপূরণের টাকা শাসক দলের নেতাদের একাংশের বদান্যতায় বড় লোকেদের ঘরে পৌঁচেছে। অনেক ক্ষেত্রে তৃণমূল নেতা সরকারি সেই টাকা ” হজম করেছেন বলেও অভিযোগ। কোনো কোনো ক্ষেত্রে তাদের আত্মীয় স্বজন, ঘনিষ্ঠ বা প্রভাব শালী ব্যক্তিদের টাকা পাইয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। এই নিয়ে তৃণমূলেরই একাংশ এই অভিযোগ তুলছে।এমতাবস্থায় বৃহস্পতিবার দুপুরে পূর্ব মেদিনীপুরের এগরা ১ ব্লকের পাঁচরোল বাজারে এগরা-কশবা গোলা রাজ‍্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপির নেতা কর্মীরা। বিজেপি দাবি, তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতির স্ত্রী ও এক আত্মীয় সহ পঞ্চায়েত সদস্য এবং যুব সংগঠনের পদাধিকারী (কার্যকরী সভাপতি) নেতার ভাই সহ পরিবারের আরও অনেকে টাকা পেয়েছেন। বিজেপি নেতা কর্মীরা অভিযোগ করে বলেন,”টাকা যারা পেয়েছেন তাদের কারো দোতলা,কারো তিন তলা বাড়ি এবং সেগুলির আদৌ কোনো ক্ষতি হয়নি। অথচ প্রকৃত প্রাপকেরা ক্ষতিপূরণ থেকে বঞ্চিত।এপ্রসঙ্গে পাঁচরোল গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান রবীন্দ্রনাথ সোম বলেন, এই সমস্ত দুর্ণীতির অভিযোগ আমাদের নজরে নেই, তদন্ত প্রক্রিয়ায় মাধ্যমে বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে। এগরা ১ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি অমিও রাজ বলেন, এ বিষয়ে আমাদের কাছে কোনো অভিযোগ আসেনি। তবে অভিযোগ এলে পুরো বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্ৰহণ করা হবে। তিনি আরও বলেন, বিজেপি রাজনৈতিক স্বার্থে এই সমস্ত অভিযোগ করছে। এগরা ১ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি বিজন বিহারী সাউ বলেন, নিঁচু তলার কিছু নেতা ক্ষমতার অপব্যবহার করে প্রকৃত ক্ষতি গ্রস্তদের ক্ষতি পূরণ থেকে বঞ্চিত করেছেন। তদন্ত করলে সব বেরিয়ে আসবে। যদি এমটাই হয়ে থাকে তাহলে দল থেকে আমরা তাদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্ৰহণ করা হবে। এ বিষয়ে এগরা ১ ব্লকের বিডিও বংশীধর ওঝা বলেন, ক্ষতি গ্রস্তদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা বহুদিন আগে বিডিও অফিসে টাঙানো হয়েছে। তবে প্রমাণ সাপেক্ষে নিদিষ্ট অভিযোগ জানানো হলে তদন্ত করে দেখা হবে। তবে অভিযুক্ত নেতাদের বিরুদ্ধে কি শাস্তিমূলক পদক্ষেপ করলেই দলের স্বচ্ছ ভাবমূর্তি ফিরবে কি,না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে খোদ তৃণমূলের অন্দর মহলে।

শেয়ার করুন