আর্থিক দূরাবস্থায় অসহায় মালদার পরিবার, সাহায্যের আবেদন

নিজস্ব সংবাদদাতা,মালদাঃ– মালদহের হবিবপুর ব্লকের বেগুন বাড়ি এলাকায় এক আদিবাসী পরিবার অসহায় অবস্থার মধ্যে দিন কাটাছে কারন পরিরের একমাত্র উপার্জনক্ষম এক ব্যাক্তি বাবলু হেমব্রম প্রায় ১২ বছর ধরে অন্ধহয়ে ঘরে বসে রয়েছে।সেই পরিবারে রয়েছে দুই মেয়ে সহ এক ছেলে।অন্ধ বাবলু হেমব্রম (৪৮)তার স্ত্রী ও এক ছেলে ও দুই মেয়ে এক মেয়ের বিয়ে হয়ে গিয়েছে এক বাড়িতে রয়েছে এক ছেলে রাজীব হেমব্রম(৮) মেয়ে কাজলী হেমব্রম (১৩) অর্থিক অনটনে মধ্যে ভুক্তভোগী হয়ে রয়েছে টাকার অভাবে ডাক্তার দেখাতে পারছেন না এখুন তাকিয়ে রয়েছে সরকারি সাহায্য দিকে।এবিষয়ে গ্রামের বাসিন্দা প্রদিপ পান্ডে বলেন বাবলু হেমব্রম প্রায় ১২ বছর ধরে এই ভাবে অন্ধ হয়ে রয়েছে অন্য দিকে তার ছেলেও গ্লান্ড টি বি রোগে আক্রান্ত হয়ে রয়েছে চিকিৎসা জন্য তাদের কাছে কোনা টাকা নেই ডাক্তার জানিয়েছে তার ছেলেকে কোলকাতা নিয়ে যেতে টাকার অভাবে যেতে পারছেন এই বলে প্রদিপ বাবু নিজেই কেদে ফেলেছে গরীবের পাশে একটু সাহায্য হাতে বারানে জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছি।পাশ্ববর্তী বাড়ির মালতি হেমব্রম জানায় গ্রামে অনেকেই খাবার দিয়ে যায় কিন্তু বাড়িতে অর্থ উপাজনে এক মাত্র ভরসা তার স্ত্রী লোকের জমিতে কাজ করে সংসার চালাছে কিন্তু কি করে তার অন্ধ স্বামী ও পুত্র চিকিৎসা করর মতো অর্থ না থাকায় চিন্তা পরেছে শুধু তাকিয়ে রয়েছে সরকারি সাহায্য দিকে এবিষয়ে হবিবপুর ব্লকের বিডিও শুভজিৎ জানা, জানায় তাদের পাশে থাকবেন এবং জেলা প্রশাসনের কাছে এই বিষয় জানাবে এবং সেই পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দেওয়া হয়।




%d bloggers like this: