ক্লান্তি ঘুমে ,হটাৎ বোমাবাজি।

সুদীপ ঘোষ,নদীয়া: শান্তিপুর শহরের 14 নম্বর ওয়ার্ড এবং 5 নম্বর ওয়ার্ডের সংযোগস্থলে একটি মাঠের পাশে বাড়ি গুপীনাথ বিশ্বাসের। অন্য আর পাঁচটি সাধারণ দিনের মতন রাত11 টায় ঘুমিয়েছেন সাড়ে বারোটা নাগাদ হঠাৎ প্রচন্ড আওয়াজে কেঁপে গেছে তার জানলা।সকলে বাইরে এসে দেখে না ফাটা আরেকটি তাজা বোমা। শান্তিপুর থানায় ফোন করে জানালে সাথে সাথে প্রশাসন এসে উদ্ধার করে বোমাটি। শান্তিপুর থানার খুবই কাছে বাঘাযতীন পাড়ার এই ঘটনায় চাঞ্চল্য এলাকায়। আজ সকালে শান্তিপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন, কে বা কারা করেছে এ বিষয়ে কিছুই বুঝতে না পেরে, সে দায়িত্ব প্রশাসনের উপরে ছেড়েছেন গুপীনাথ বাবু।

এক মাত্র পুত্র ও পুত্রবধু নিয়ে বসবাস করা এই পরিবার খুব বেশি রাজনৈতিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করে না কেউই।তবে এলাকার যে কোনো অনুষ্ঠানে, ক্লাবে বারোয়ারিতে যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে সকলেই গুপীনাথ বাবুর উপর নির্ভরশীল, এ থেকেই হয়ত প্রতিষ্ঠা কারোর ঈর্ষার কারণ হতে পারে অনুমান করেন গুপনাথ বাবু। তিনি জানান সকল মানুষ আমাকে ভালোবেসে, বিশ্বাস করে আমাকে দায়িত্ব দেয়, এক্ষেত্রে আমার অন্য কোনো অভিপ্রায় নেই। তবে এ ধরনের বর্বরোচিত ঘটনা, যে বা যারাই করুক, একদিন প্রকাশিত হবেই প্রশাসনের উপর এ বিশ্বাস আমার আছে।

শেয়ার করুন