গোসাবা ব্লকের দুস্থ গর্ভবতী মহিলাদের জন্য হাসপাতালের তরফ থেকে এলাহি আয়োজন, এই যেন ভারতীয় রীতির  “সাধের” তৃপ্তি পেলেন তারা।

বাবলুপ্রামানিক দক্ষিণ 24পরগনা:
প্রাচীন ভারতবর্ষে,গর্ভবতী মাকে ফল এবং অন্যান্য আহার্য সামগ্রী যা কিনা গর্ভস্থ শিশুর বৃদ্ধির সহায়ক সেগুলিকেই উপহার স্বরূপ দেওয়া হত।যা সময়ের সাথে সাথে পরিবর্তিত হয়েছে এবং বর্তমানে তা বাংলায় সাধ এবং হিন্দিতে গোধ ভরাই হিসেবে সুপ্রসিদ্ধ। তবে রীতি থাকলেও গোসাবা ব্লকের দুঃস্থ গর্ভবতী মহিলাদের পরিবারের পক্ষে সেই সাধের অনুষ্ঠান করার মতো সাধ্য নেই ।এমনিতেই করোনা তে কাজ হারিয়েছেন অনেকেই তারপর আমফানে ঘরবাড়ির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তাদের ফলেই রীতি থাকলেও সাধের অনুষ্ঠান করার মত সামর্থ্য তাদের নেই ।তবে গোসাবা ব্লক হাসপাতালের পক্ষ থেকে ডক্টর ইন্দ্রনীল বর্গীর উদ্যোগে এবং গোসাবা ব্লকের বিডিও সৌরভ মিত্র এবং ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রশান্ত মন্ডল এর সহযোগিতায় আজ তিরিশ জনের অধিক দুস্থ গর্ভবতী মহিলাদের জন্য এলাহি আহারের আয়োজন করা হয়েছিলো। সেই এলাহি আয়োজনের তালিকায় ছিলো, ভাত শাক ভাজা আলু কুমড়ো সহযোগে বিভিন্ন সবজির একটি পদ, মাছের মাথা দিয়ে ডাল কাতলা মাছের ঝোল, চাটনি, মিষ্টি দই শেষে বিভিন্ন ধরনের ফল, শুধুমাত্র আজকের দিনে এলাহি আয়োজনের ব্যবস্থা নয় তারা এই সময়ে আরো বেশ কিছুদিন এমনই পুষ্টিকর খাবার বাড়িতে খেতে পারেন তার জন্য তাদেরকে বারুইপুর মহিলা থানার আইসি কাকলি ঘোষ এবং নিমপিথ রামকৃষ্ণ মিশনের তরফে বিভিন্ন ধরনের পুষ্টিকর খাবার তুলে দেওয়া হয়েছে । পাশাপাশি এই সময় গর্ভবতী মহিলারা কেমন ধরনের সুষম আহার করবেন সেই ব্যাপারে একটি সুনির্দিষ্ট পরামর্শ দেয়া হয় আজকে। সবশেষে তাদেরকে ডক্টর ইন্দ্রনীল বর্গী এন্টিনেটাল চেকআপ করেন। এবং ডক্টর প্রলয় বেড়া ডেন্টাল হাইজিন সম্পর্কিত সচেতনা প্রদান করেন।

শেয়ার করুন