ঘরে না ফেরা ১১ লোহার পরিবারের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন চোপড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মহম্মদ আজহার উদ্দিন

জয়দেব গোপ, উত্তর দিনাজপুর: ভিন রাজ্য থেকে রুজি রুটির টানে পশ্চিমবাংলায় এসে আটকে পড়েছে ১১জনের আগরিয়া(লোহার পরিবার)। মধ্যপ্রদেশের সাগর জেলার গোরেলাল আগরিয়া বয়স (৬৫) জানান, তারা রুজির টানে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে ঘুরে ঘুরে লোহার সামগ্রী যেমন,দা, কুরুল, বটি ইত্যাদি তৈরি বিক্রি করে রোজগার করে সংসার চালান। তিনি আরও জানান, এবারও তার স্ত্রী ছেলে মেয়ে পুত্রবধূ ও নাতনি সহ মোট ১১জনের পরিবার নিয়ে গত নভেম্বর মাসে এরাজ্যে এসেছেন। বর্তমানে তারা উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া ব্লকের হাপতিয়া গছ অঞ্চলের ভৈসপিটা মোড়ে আস্তনা দিয়েছেন। এখানে তারা কয়েক মাস ধরে কাজ করে তাদের সামগ্রী বিক্রি করে ভাল রোজগার চলছিল। কিন্তু গোটা দেশে করোনা থেকে বাঁচতে দেশের লোকডাউন ঘোষণা হতেই তারা অসহায় হয়ে পড়ে।

বর্তমানে তারা এখন না পারছে বাড়ি ফিরতে,না চলছে ব্যবসা। এমতাবস্থায় তাদের এখন দুবেলার রুটি জোগাড় করায় দায়। তারা এখন খোলা আকাশের নীচে রয়েছেন। এই খবর সংবাদ মাধ্যমের মাধ্যমে জানতে পেরে চোপড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মহম্মদ আজহার উদ্দিন ওই পরিবারের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। আজ বিকেলে তিনি নিজে এসে ওই পরিবারের হাতে কিছু খাদ্য সামগ্রী ও কিছু আর্থিক সাহায্য করেন। সভাপতি আজহার উদ্দিন এর এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

শেয়ার করুন