ঝাড়গ্রামে “সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ” কর্মসূচির উদ্বোধনে পুলিশ সুপার ও জেলাসাশক


জেলা সংবাদদাতা, ঝাড়গ্রাম: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের স্বপ্নের প্রকল্প ” সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ ” প্রকল্পের চতুর্থ বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে জনস্বার্থে প্রচারের লক্ষ্যে বাইক র‍্যালির সূচনা করলেন ঝাড়গ্রামের পুলিশ সুপার অমিত কুমার ভারত রাঠোর ও ঝাড়গ্রামের জেলাশাশক আয়েশা রানি এ। ঝাড়গ্রামজেলা পুলিশের উদ্যোগে ঝাড়গ্রামের পাঁচ মাথার মোড়ে ” সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ ” প্রকল্পের চতুর্থ বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মানুষকে সচেতন করার উদ্যোগ নেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঝাড়গ্রাম জেলার পুলিশ সুপার অমিত কুমার ভারত রাঠোর, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ,ঝাড়গ্রামের এসডিপিও,আইসি, সহ অন্যান্য পুলিশ আধিকারিকেরা। সবুজ পতাকা নাড়িয়ে ” সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ ” প্রকল্পের ট্যাবলোর উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার অমিত কুমার ভারত রাঠোর। সেই ট্যাবলো ও সুসজ্জিত পুলিশের বাইক র‍্যালি ঝাড়গ্রাম জেলা ষর পরিক্রমা করে সাধারন মানুষকে রাস্তায় যানবাহন চলাচল সম্পর্কে সচেতনতার বার্তা দেয়।

রাজ্যে পথ দুর্ঘটনার সংখ্যা কমাতে এবং সাধারন মানুষকে যানবাহন চলাচল সম্পর্কে আইনি সচেতনতা ও সাবধানতা অবলম্বন করার উদ্দেশ্যে ২০১৬ সালে রাজ্যের মানবিক মুখ্যমন্ত্রী মমতা চালু করেছিলেন ” সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ ” প্রকল্প। মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নের সেই প্রকল্প আজ চার বছর পূর্ণ করল। ” সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ ” প্রকল্পের চতুর্থ বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে সামাজিক দূরত্ব বিধি বজায় রেখে এক বর্নাঢ্য সচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করল ঝাড়গ্রাম জেলা পুলিশ।

ঝাড়গ্রামের জেলা শাষক আয়েশা রানি এ বলেন সেভ ড্রাইভ সেভ লাইভ কর্মসূচি চালু হওয়ার পর ভারতবর্ষের মধ্যে একটা ভাল জায়গায় পৌছে গেছে পশ্চিমবঙ্গ। ঝাড়গ্রাম জেলা পুলিশ বেশি করে অ্যায়ারনেশ প্রোগাম করার ফলে পথ দূর্ঘটনা অনের কমে গেছে ।

ঝাড়গ্রাম জেলা পুলিশ সুপার বলেন সেভ ড্রাইভ সেভ লাইভ কর্মসূচির ফলে আমরা অনেক প্রান বাঁচাতে পেরেছি। ঝাড়গ্রামবাসি কে ট্রাফিক আইন মেনে চলা ও হেলমেট পরার আবেদন জানালেন।এবং ঝাড়গ্রামবাসিকে বাডির বাইরে বেরোলে মুখে মাস্ক পরার ও আবেদন জানালেন পুলিশ সুপার।

শেয়ার করুন