তেহট্টের একই পরিবারের ৫ সদস্যের করোনা পজিটিভ, রাজ্যে আক্রান্ত ১৫

পবিত্র সরকার,নদীয়া:তিন দিন আটকে থাকার পরে হঠাৎ করে রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক ধাক্কায় বাড়ল ৫। নদিয়ার তেহট্টে একই পরিবারের ৫ জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর এসেছে শুক্রবার রাতেই।

জানা গিয়েছে, নদিয়ার তেহট্টের এক বাসিন্দা চলতি মাসেই ইংল্যান্ড থেকে ফিরেছিলেন দিল্লিতে। তাঁঁর দেহে করোনার জীবাণু পাওয়া যাওয়ায় তিনি দিল্লির হাসপাতালেই ভর্তি রয়েছেন। তাঁকে দেখতেই গিয়েছিলেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা।

বাড়ির সদস্যকে দেখতে সেখানে গিয়েছিলেন তাঁর পরিবারের ১৩ জন সদস্য। গত ২০ তারিখ তাঁরা সকলেই দিল্লি থেকে কলকাতায় ফেরেন। এরপরই তাঁদের সকলকে সরকারি কোয়ারেন্টিনে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। বৃহস্পতিবারই তাঁদের সকলের লালারস ও রক্ত পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। আজ, শুক্রবার এঁদের সকলের রিপোর্ট আসে। সেখানেই পাঁচ জনের দেহে করোনা ভাইরাস পজিটিভ মিলেছে। তারপরেই তাঁদের বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদের মধ্যে একটি ৯ মাসের ও একটি ৬ বছরের শিশু রয়েছে বলেও জানা গিয়েছে। যা সত্যিই আশঙ্কার খবর। এই পাঁচ ব্যক্তির দ্বারা কতজন আক্রান্ত হয়েছেন, এখন স্বাস্থ্যভবন সেটাই খুঁজে দেখছে। যদিও এর আগে বালিগঞ্জের এক পরিবারের ৩ সদস্যের দেহে এই করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গিয়েছে। এবার নদিয়ার তেহট্টের এই পরিবারে ৫ জনের দেহে পাওয়া গেল করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব। যা সত্যিই চিন্তা বাড়াল রাজ্য প্রশাসনের।

ইতিমধ্যেই রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। পাশাপাশি, নয়াবাদের এক বাসিন্দার অবস্থা অত্যন্ত খারাপ। তাঁকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছে। তাঁর পরিবারের চার সদস্যকে ইতিমধ্যেই সরকারি কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এখন তাঁদের কী রিপোর্ট আসে সেদিকে তাকিয়ে প্রশাসনের কর্তারা। যদিও তেহট্টের এই পরিবারের বাকি ৮ সদস্যের শরীরে করোনার ভাইরাস মেলেনি।নদীয়া জেলা শাসক কে ইতিমধ্যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করে দেখার জন্য

শেয়ার করুন