দক্ষিনের জেলায় “পথশ্রী”প্রকল্পের বাস্তবায়ন শুরু


সেখ নুরুদ্দিন,দঃ২৪ পরগনা: দেশ জুড়ে উত্তাল রাজ্য রাজনীতির তরজা। উওর প্রদেশে হাথরসে ঘটে যাওয়া মনীষার নৃশংসখুনধর্ষণ কান্ড নিয়ে সরব সব বিরোধী রাজনৈতিক দল। চলছে চতুর্দিকে প্রতিবাদ, বিক্ষোভ,সমাবেশ সভা। এইসময়ে চোখে পড়ল সদ্য ঘোষিত হওয়া পথশ্রী প্রকল্পের বাস্তবায়নের কর্মসূচি দঃ ২৪ পরগণা জেলার শহর ও গ্ৰামের প্রান্ত থেকে প্রান্তিকে। নামখানা থেকে ডায়মন্ডহারবার, কুলপি থেকে জয়নগর হয়ে বারুইপুর, সোনারপুর থেকে ঘটকপুকুর, মকরমপুর থেকে ঘুটিয়ারি, সর্বত্রই চলছে রাস্তা মেরামতির কাজ। বাম আমলে জেলার বেশিরভাগ রাস্তার বেহাল দশার চিত্র প্রায় সবারই জানা। দিদি ক্ষমতায় আসার পরে সেসব মেরামতি, কোথাও নব নির্মাণের পরিকল্পনা আর বাস্তবায়ন ঘটেছিল। ২য় বার মুখ্যমন্ত্রী পদে মাননীয়ার অভিষেকের পরে পরে পুনরায় সেই আগের রাস্তার বেহাল দশার চিত্র জনগণের চোখে ভেসে ওঠে। বেহাল রাস্তার জন্য ভুগতে হয় নিত্য সব পথচারীকে। দিনের পর দিন পথে বাইক, বাস, অটো, লরি দুর্ঘটনার জেরে প্রাণ হারাতে হয় অনেকেই। প্রায়শঃই এমন ঝুঁকি নিয়ে প্রতিনিয়ত কেউ ফেরেন ঘরে, কেউবা যান ঘর থেকে কাজে। বেহাল রাস্তার ভোগান্তির মাঝে যানজট হলেই টের পেত সব্বাই। নাভিশ্বাস উঠেছিল জনজীবনে।বাংলার জননেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে উত্তরবঙ্গে সদ্য পথশ্রী প্রকল্পের শুভারম্ভ হয়েছে।সেই কর্মসূচি বাস্তবায়নে উৎসাহী ও উদ্যোগী হয়েছেন প্রশাসনিক আমলা থেকে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা। দঃ২৪ পরগনা জেলার বিভিন্ন প্রান্তে চলছে সরকারি ভাবে রাস্তা নবীকরণের তোড়জোড়। বিরোধী দের মুখে উঠেছে, “দিদিমনি ভোট বৈতরণী পার হতে জনগণের মধ্যে আশা-ভরসা জাগাতে এমন প্রকল্পের সূচনা করেছেন। সাধারণ মানুষের অনেকটা চাওয়া পাওয়া পূরণ হবে। পরিবহন ব্যবস্থার হাল ফেরাতে মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী নিজে দলীয় নেতা কর্মীদের সততার সঙ্গে একনিষ্ঠ ভাবে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন ও প্রশাসনিক ভাবে সহযোগিতা করতে বলেছেন।।

শেয়ার করুন