নর্দমার জমা জল পরিস্কার করতে গিয়ে ১৮ বছরের তরতাজা যুবকের মৃত্যু।

পশ্চিম বর্ধমান : বর্ষার কারণে জমা জল দুর্গাপুর নগর নিগমের পক্ষ থেকে পরিষ্কার করা হয় । সেই মতই ৪৩ নম্বর ওয়ার্ডের রায়ডাঙাতে পকলেন দিয়ে নর্দমা পরিষ্কার করার সময় বিদ্যুতের খুঁটি পড়ে যায় ও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় বছর ১৮ তরতাজা এক যুবকের ।
রবিবার ছুটির দিন থাকা সত্ত্বেও আজ জরুরিকালীন ভিত্তিতে দুর্গাপুর নগর নিগমের ৪৩ নম্বর ওয়ার্ডের রায়ডাঙাতে নর্দমা পরিষ্কারের কাজ চলছিল । সেই সময় নগর নিগমের কোনও সুপারভাইজ়ার ঘটনাস্থলে ছিলেন না । আসানসোল ও অন্ডালের বাসিন্দা দুজন পকলেন অপারেট করতে গিয়ে একটি বিদ্যুতের দুর্বল খুঁটি ভেঙে পড়ে এবং পকলেনের এক বছর আঠারোর কর্মী সাহিল সাজি নর্দমার পাশে বসে থাকার কারণে বিদ্যুতের তার তাঁর শরীরে জড়িয়ে যাওয়াতেই ঘটনাস্থানেই তাঁর মৃত্যু হয় । স্থানীয়দের কাছ থেকে জানতে পারা যায় অন্ডাল থানার মদনপুরে সাহিল সাজির বাড়ি ৷ পকলেন চালক ঘটনাস্থান থেকেই পালিয়ে যান,স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, নগর নিগমের কোনও সুপারভাইজ়ার কি এখানে দাঁড়িয়ে কাজ করাতে পারতেন না ?ঘটনাস্থানে দ্রুত পৌঁছান ৪৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর চন্দ্রশেখর ব্যানার্জি । তিনি জানান, স্থানীয় দুজন অভিযোগ জানিয়েছিল দুর্গাপুর নগর নিগমের কাছে । নর্দমার জমা জল সরাতে আজ রবিবার ছুটির দিনেও কাজ হচ্ছিল । সুপারভাইজ়াররা সব দুর্গাপুর স্টেশন বাজারে ব্যস্ত ছিল । যারা এখানে অভিযোগকারী তাদের উচিত ছিল দাঁড়িয়ে থেকে কাজ করানো কারণ এরা বাইরের কর্মী বিদ্যুতের খুটি যে দুর্বল ছিল তা তারা জানত না ।

শেয়ার করুন