নাবালিকার শ্লীলতাহানীর অভিযোগে এক শিক্ষিকার স্বামীকে গণধোলাই দিলো উত্তেজিত জনতা

নিজস্ব সংবাদদাতা, পশ্চিম মেদিনীপুর:-
পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাসপুর থানার সুলতান নগর এলাকায় বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় যে পঞ্চম শ্রেণীর এক ছাত্রীবুধবার তার গৃহ শিক্ষিকার বাড়িতে পড়তে যায় ।পড়া শেষ করে সে যখন বাড়ি ফিরছিল তখন গৃহ শিক্ষিকার স্বামী শুভাশিস মন্ডল পঞ্চম শ্রেণির ওই ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ। ওই ছাত্রীর আর্তচিৎকারে তাকে ছেড়ে দিয়ে ছুটে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত। এরপর বিষয়টি জানাজানি হলেএলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বুধবার রাতে যখন অভিযুক্ত শুভাশিস মন্ডল বাড়ি ফিরছিল সেই সময় তাকে গ্রামবাসীরা ধরে ফেলে এবং উত্তম-মধ্যম গণধোলাই দেয় যার ফলে এলাকায় মুহূর্তের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। উত্তেজিত গ্রামবাসীরা অভিযুক্তকে গণধোলাই দিয়ে দাসপুর থানার পুলিশকে ডেকে অভিযুক্ত গৃহ শিক্ষিকার স্বামীকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। গ্রামবাসীরা অভিযুক্ত শুভাশিস মন্ডল কে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়ার দাবি জানিয়েছে। ওই ঘটনার পর রীতিমতো আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন নাবালিকা ওই ছাত্রী ও তার পরিবারের লোকেরা। ওই নাবালিকা ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়েছে। দাসপুর থানার পুলিশ অভিযুক্ত শুভাশিস মন্ডল কে গ্রেপ্তার করে ওই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। তবে ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় যথেষ্ট উত্তেজনা রয়েছে।

শেয়ার করুন