পুরুলিয়ায় অসহায়দের ঠিকানা লোকেশ্বরানন্দ আই ফাউন্ডেশন


নিশীথ ভূষণ মাহাত, পুরুলিয়া : করোনার থাবায় দিশেহারা মানুষ । তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে দীর্ঘ লক ডাউনে কর্মহীন বহু মানুষ ধুঁকছে অনটনে । অতি সম্প্রতি আনলক প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে । তবে বিশেষ বিশেষ কনটেনমেন্ট জোনে এখনও চলছে লক ডাউন । গত ৯ জুলাই বৈকাল পাঁচটা থেকে ঐসব স্থান গুলিতে আরও কড়াভাবে লক ডাউন শুরু হয়েছে । দীর্ঘদিন ধরে করোনার সঙ্গে লড়াই করতে করতে দিশেহারা মানুষ । ত্রাহি ত্রাহি রব উঠেছে সর্বত্র । একদিকে মৃত্যু মিছিল । অন্যদিকে হা ভাত । দরিদ্র মানুষের মধ্যে দেখা দিয়েছে চরম অনটন । ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে কৃষি মরশুম । যথাসময়ে এসেছে বর্ষা । এই সময়টাকে রুখামাটির দেশে অভাবের মাস বলা হয় । এমনই এক সঙ্কটাপন্ন মূহুর্তে দরিদ্র মানুষের মধ্যে এক বেলা মধ্যাহ্ন ভোজনের ব্যবস্থা করল পুরুলিয়ার বিখ্যাত চক্ষু হাসপাতাল ‘লোকেশ্বরানন্দ আই ফাউন্ডেশন ‘ । কেন্দা থানার কোনাপাড়া, ব্যঙথুপি, সহ অযোধ্যা পাহাড়ের প্রত্যন্ত আদিবাসী গ্রাম এবং পুরুলিয়া ২ ব্লকের জামবাদ, লুকুইডি, রায়ডি, পাথরাখুন গ্রামের বহু দরিদ্র মানুষের মধ্যাহ্ন ভোজনের ব্যবস্থা করল । পুরুলিয়া ২ ব্লকের জামবাদ গ্রামের বাবা পঞ্চমুখী ধামেও দশদিন ধরে প্রতিদিন প্রায় দুই শতাধিক মানুষের একবেলা খাবার ব্যবস্থা করেছিল লোকেশ্বরানন্দ চক্ষু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ । সদ্য সমাপ্ত হল এই প্রকল্প । সংস্থার পক্ষ থেকে মঙ্গল পাণ্ডে বললেন “স্বামীজির মতাদর্শে এই প্রতিষ্ঠান দুঃস্থ মানুষের সেবায় এভাবেই কাজ করে চলবে । সংস্থার বিশেষ দায়িত্বে থাকা জগন্নাথ গোস্বামী বলেন ” ভবিষ্যতেও আমরা মানুষের পাশে দাঁড়াতে চাই ।”

শেয়ার করুন