পূর্ব মেদিনীপুরের এগরায় তৃণমূলের সংবাদ সম্মেলন


নিজস্ব সংবাদদাতা, পূর্ব মেদিনীপুর: সাম্প্রতিক সুপার সাইক্লোন আমপানের ক্ষতিপূরণ নিয়ে যে স্বজোনপোষন ও দূর্ণীতির অভিযোগ উঠেছিল তা কার্যত বিরোধীদের রাজনৈতিক সড়যন্ত্র’কে দায়ি করলেন শাসক দলের অঞ্চল সভাপতি। রবিবার পূর্ব মেদিনীপুর জেলার এগরা ১ ব্লকের পাঁচরোল অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অশোক দাস এক সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেন। এ দিন তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, পাঁচরোল অঞ্চল বিগত ২০ বছর ধরে তৃণমূলের আমলে স্বচ্ছতার সঙ্গে চলছে। এখানে কোনো অস্বচ্ছতার রূপ নেই। ব্যক্তি অশোক দাস ও দলের অঞ্চল সভাপতি অশোক দাস কি রকম, সেটা সারা এগরা বিধানসভার মানুষ জানেন।পাশাপাশি, দলের জেলা সভাপতি, বিধায়ক ও ব্লক নেতৃত্বরা আমার বিষয়ে জানেন। আমি দীর্ঘ ২০ বছর পাঁচরোল তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি দায়িত্ব সামলেছি। আজ যারা স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন, তারা এতটা দূর্ণীতিতে ডুবে আছেন যে তা নিজেরাই জানেনা। আমি কোনো ব্যক্তি নাম করে বলতে চাই না সাধারণ মানুষ জানেন যে তিনি কতটা দুর্ণীতি পরায়ণ। আগামী দিনে পাঁচরোল গ্ৰাম পঞ্চায়েত স্বচ্ছতার শহিদ চলবে। ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচন সারা এগরা বিধানসভার মধ্যে পাঁচরোল গ্ৰাম পঞ্চায়েত থেকে সর্বাধিক লিড তৃণমূল কংগ্রেস পাবে। আমি দলের অঞ্চল সভাপতি হিসেবে একথা চ্যালেঞ্জ করে বিরোধীদের বলতে চাই। এ দিনের আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পাঁচরোল অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী মানসী দে, দলের অঞ্চল যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি চন্দন রায়, সেক আসফাত উল্লাহ খান প্রমুখ।
তবে এ প্রসঙ্গে এগরা ১ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি বিজন বিহারী সাউ বলেন, “আমফানের ক্ষতিপূরণের টাকা নিয়েছেন। তাই তাঁকে অবিলম্বে সরকারি টাকা ফেরত দিতে হবে। আমাদের দলের জেলা সভাপতিও অশোক দাস’কে তা জানিয়েছেন।”প্রসঙ্গত,আমফানের ক্ষতিপূরণ না পাওয়া এবং তা নিয়ে শাসক দলের স্বজন পোষণ ও দূর্নীতির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ চলছে রাজ‍্যের বিভিন্ন স্থানে।এমতাবস্থায় পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দীগ্রাম, কাঁথি, মহিষাদল, চণ্ডীপুর, খেজুরি, পটাশপুর, ভগবানপুর, তমলুক, কোলাঘাট, হলদিয়া, পাঁশকুঁড়া, রামনগরের পর এবার আমপানের ক্ষতিপূরণ না পাওয়া ও শাসকদল তথা তৃণমূলের স্বজন পোষণের অভিযোগ উঠলো এগরায়। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় শোর গোল পড়ে গিয়েছে। তৃণমূল পরিচালিত এগরা-১ ব্লকের পাঁচরোল গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় ব্যাপক দুর্ণীতি ও স্বজন পোষণের অভিযোগ উঠল বৃহস্পতিবার। এই প্রসঙ্গে রবিবার কার্যত সমস্ত অভিযোগ খারিজ করল পাঁচরোল অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অশোক দাস।

শেয়ার করুন