বিজেপি ছেড়ে ৫০০ জন তৃনমূলে যোগদান

নিজস্ব সংবাদদাতা, পশ্চিম মেদিনীপুর:-
শনিবার বিজেপির রাজ্য সভাপতি তথা মেদিনীপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষ ও বিজেপির রাজ্য কমিটির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাঁতন থানার চক ইসমাইল গ্রাম পঞ্চায়েতেরকুশমী গ্রামে এক প্রতিবাদ সভায় পুলিশকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। দলীয় কর্মী পবন জানার মৃতদেহ নিয়ে কুশমী গ্রামে গিয়ে প্রতিবাদ সভায় দিলীপ ঘোষ বলেছিলেন যেসব পুলিশ অফিসাররা তৃণমূল কংগ্রেসের হয়েদালালি করছে তাদের নাম লিখে রাখা হয়েছে।২০২১ সালে ক্ষমতায় আসার পর তাদের যেমন ওষুধ প্রয়োজন তেমনি ওষুধ প্রয়োগ করা হবে।ওই সভায় বিজেপির রাজ্য কমিটির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু দাঁতন থানা জ্বালিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন। ওই দুই বিজেপি নেতার বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে রবিবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার বিভিন্ন এলাকায় বিজেপি দল ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করার হিড়িক শুরু হয়ে যায়। রবিবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার খড়গপুর এক ব্লকে বিজেপি ছেড়ে ৫০০জনতৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন এবং তারা দিলীপ ঘোষ ও সায়ন্তন বসুর বক্তব্যের এর বিরোধিতা করেন ।তাদের হাতে তৃণমূল কংগ্রেসের পতাকা তুলে দেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতি, বিধায়ক দিনেন রায়, তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা নির্মল ঘোষ সহ দলের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। খড়গপুর এর পর মেদিনীপুর শহরের ফেডারেশন হলে আরেকটি যোগদান পর্ব অনুষ্ঠিত হয় । সেখানে কেশপুর থেকে প্রায় ৫০০ জন বিজেপি দল ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন। তাদের হাতে তৃণমূলের পতাকা তুলে দেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতিও জেলা পরিষদের সভাধিপতি উত্তরা সিংহ হাজরা, কেশপুরের তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক শিউলি সাহা সহ দলের অন্যান্য নেতারা। তৃণমূলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতি বলেন দিলীপ ঘোষ যখনই মেদিনীপুরে আসবে তখনই তৃণমূলে যোগদান এর জন্য বিজেপি ছাড়ার হিড়িক শুরু হয়ে যায়। শনিবার যে ভাষায় সায়ন্তন বসু এবং দিলীপ ঘোষ উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়েছেন তারই পরিপ্রেক্ষিতে রবিবার এক হাজারেরও বেশি বিজেপি কর্মী বিজেপি দল ছেড়েতৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেছে। তিনি আরও বলেন যে আগামী দিনে বিজেপি বলে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় কোন কিছুই থাকবে না। বিজেপির কর্মী ও সমর্থকরা বিজেপি দল ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার জন্য আমাদের কাছে আবেদন করেছেন। তাদেরকে ধীরে ধীরে দলে যোগদান করানো হবে বলে অজিত বাবু জানান।

শেয়ার করুন