বিজেপি- তৃনমূল সংঘর্ষে আহত ৬

নিজস্ব সংবাদদাতা, পশ্চিম মেদিনীপুর:-গত বুধবার সন্ধ্যায় পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাঁতন থানার চক ইসমাইলপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কুসমি গ্রামে বিজেপি তৃণমূল সংঘর্ষে আহত হয় ৬ জয়ন বিজেপি কর্মী,যাদের মধ্যে পবন জানাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে কলকাতা স্থানান্তরিত করা হয়,বৃহস্পতিবার দুপুরে বিজেপি কর্মী পবন জানার মৃত্যু হয় কলকাতার এক বেসরকারি হাসপাতালে, ইতিমধ্যেই এই ঘটনার প্রতিবাদে পথে নেমেছে বিজেপি জেলা নেতৃত্ব,শনিবার বিজেপি কর্মী পবন জানার মৃতদেহ মেদিনীপুর জেলা বিজেপি পার্টি অফিসে আনা হয় এবং সেখান থেকেই শুরু হলো নিহত বিজেপি কর্মী পবন জানার শবযাত্রা।জেলার সদর কার্যালয় বিজেপি কর্মীর দেহে মালা দিয়ে সম্মান জানান বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু, পুরুলিয়ার সাংসদ তথা রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক জ্যোতির্ময় সিং মাহাতো বিজেপি নেতা কর্মীরা।
নিহত বিজেপি কর্মীর দেহ মাল্যদান করার পর বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “যেখানে লকডাউনের জেরে বন্ধ হয়ে গিয়েছে চুরি-ছিনতাই সেখানে এখন পর্যন্ত গ্রামে গ্রামে চলছে রাজনৈতিক বিবাদ। সেখানে বেঘোরে প্রাণ দিতে হচ্ছে বিজেপি কর্মীদের।” তার দাবি এখনো পর্যন্ত রাজ্যে ১০৩ টি রাজনৈতিক সংঘর্ষে প্রাণ দিতে হয়েছে বিজেপি কর্মীদের।
তৃণমূলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতি গোটা বিষয়টি গ্রাম্য বিভেদ বলে দাবি করলেও বিজেপির রাজ্য সভাপতির পাল্টা দাবি তৃণমূলের অন্দরেই চলছে বিবাদ।
গোটা ঘটনাকে দুর্ভাগ্যজনক আখ্যা দিয়ে হিংসার রাজনীতি বন্ধ হওয়া দরকার বলেও দাবি করেন রাজ্য বিজেপির এই হেভিওয়েট নেতা।

শেয়ার করুন