বয়লার বিস্ফোরণে মৃত বাঁকুড়ার শ্রমিক পরিবারের পাশে সতীশ সামন্ত ট্রাস্ট

বাঁকুড়াঃ বয়লার বিস্ফোরণে মৃত বাঁকুড়ার জঙ্গল মহলের ‘পরিযায়ী’ শ্রমিকের পরিবারের পাশে দাঁড়ালো পূর্ব মেদিনীপুরের সতীশ সামন্ত ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট। রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর উদ্যোগে ঐ সংস্থার তরফে এক প্রতিনিধি দল বুধবার রানীবাঁধের সিদুরপুর গ্রামে এসে মৃত শ্রমিক জয়ন্ত মাহাতোর পরিবারের হাতে দু’লক্ষ টাকার চেক তুলে দেন। ঐ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে ছিলেন আদিবাসী কুড়মি সমাজের প্রতিনিধিরাও।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি গুজরাটের ভারুচ জেলার দাহেজ শিল্পাঞ্চলে যশস্বী রসায়ন প্রাইভেট লিমিটেডে কর্মরত অবস্থায় বয়লার ফেটে মারা যান রানীবাঁধের সিঁদুরপুর গ্রামের বছর পঁচিশের জয়ন্ত মাহাতো। জয়ন্তর মা বছর খানেক আগে মারা গেছেন। বাবাও গুরুতর অসুস্থ। এই অবস্থায় পরিবারের একমাত্র রোজগেরে ছেলেকে হারিয়ে দিশেহারা ছিলেন সকলে। এই অবস্থায় মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর উদ্যোগে তাঁদের পাশে আর্থিক সহযোগীতা নিয়ে যেভাবে সতীশ সামন্ত ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট তাতে খুশি সংশ্লিষ্ট সকলে।

মৃত জয়ন্ত মাহাতোর ভাই প্রশান্ত মাহাতো বলেন, চরম দূরবস্থার মধ্যে দিন কাটছিল। আর্থিক সাহায্য পেয়ে ভালো লাগলো। তবে প্রশাসনের তরফে যদি তার একটা কাজের ব্যবস্থা করা হতো তবে দু’বেলা খেয়ে পরে বাঁচা যেত বলে তিনি জানান।

সতীশ সামন্ত ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পক্ষ থেকে মৃত জয়ন্ত মাহাতোর পরিবারের লোকেদের হাতে আর্থিক সাহায্য তুলে দিয়ে প্রতিনিধি অভিজিৎ দাস বলেন, মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী কর্মব্যস্ততার জন্য নিজে আসতে পারেননি। আমিই তাঁর হয়ে এখানে এসেছি। শুভেন্দু অধিকারী সব সময় দীন, দরিদ্র, অসহায় মানুষের পাশে থাকেন। আগামী দিনেও শুভেন্দু বাবু ও সতীশ সামন্ত ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পক্ষ থেকে এই ধরণের কাজ ধারাবাহিকভাবে করে যাওয়া হবে বলে তিনি জানান।

শেয়ার করুন