ভাঙ্গড়ের পোলেরহাট মার্কেটের গুদামে আগুন

মো:জিয়ারুল ইসলাম, পোলেরহাট:
ভাঙ্গড়ের পোলেরহাট বাজারে বাদল ভারতী হার্ডওয়ার্স এর পাইপ গুদামে রাত ২:৩০ নাগাদ আগুন জ্বলতে থাকায় পথচারী কিছু মানুষের নজরে আসে ঘটনাটি, তাৎক্ষণিক ঘটনাটি হার্ডওয়ার্স মালিকের কানে পৌঁছায়। রাত ২:৫০ নাগাদ ঘটনাটি কাশিপুর থানায় জানায়, কাশিপুর থানার পুলিশ সুপার দক্ষিণ 24 পরগনার ফায়ার কন্ট্রোলরুম অর্থাৎ বেহালা ফায়ার ব্রিগেডকে জানায়। বেহালা ফায়ার ব্রিগেড তৎক্ষণাৎ ৩:৩০ নাগাদ ২টি ইঞ্জিন নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। তারপরে আগুন অনেকটা জায়গা নিয়ে ছড়িয়ে যাওয়ায়, পরিস্থিতি সামাল দিতে কলকাতা ফায়ার ব্রিগেড থেকে ১টি ইঞ্জিন, এবং উত্তর 24 পরগনা ফায়ার ব্রিগেড থেকে 2টি ইঞ্জিন এর উপস্থিতিতে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

দক্ষিণ 24 পরগনার বেহালা ফায়ার কন্ট্রোল রুমের অফিসার দীপক কুমার জানান, এই ঘটনাটি আমাদের নজরে নিয়ে আসা হয় ভোর ৩ টে নাগাদ। তারপরেই আমরা ঘটনাস্থলে দ্রুততার সঙ্গে পৌঁছায়। ঘটনাস্থলে এসে দেখা যায় যে দুটি ইঞ্জিলের তৎপরতায় এই আগুন নিভানো সম্ভবপর নয়। কেননা এই গুদামের মধ্য অনেক প্লাস্টিক পাইপ এবং রাবার জাতীয় জিনিসপত্র এবং অনেক লোহা ও এলমনিয়াম, তামা জাতীয় দ্রব্য থাকায় অনেকটা বিস্তীর্ণ এরিয়া জুড়ে আগুন জ্বলতে থাকে। সে ক্ষেত্রে পার্শ্ববর্তী শহরতলী সল্টলেকে ফায়ার কন্ট্রোল রুম আছে সেখান থেকে একটি ইঞ্জিন নিয়ে আসা হয়। এছাড়াও উত্তর 24 পরগনার কন্ট্রোলরুম থেকে দুটি ইঞ্জিন নিয়ে আসা হয়। মোট ৫টি ইঞ্জিনের দ্বারা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

পোলেরহাট মার্কেটের এই গুদামের পাশেই ছিল ইউনাইটেড ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার শাখা। এবং অনেক ছোট বড় দোকান। এই গুদামটা মার্কেটের মধ্যিখানে হওয়ায় দুশ্চিন্তায় ছিলেন অনেকে। মার্কেট সমস্ত দোকানদার এবং ব্যাংক ম্যানেজার সমস্ত মানুষজন উপস্থিত হয় ঘটনাস্থল তাদের একটাই দুশ্চিন্তা ছিল যেন এই আগুন, পাশে থাকা ব্যাংক এবং ছোট-বড় যে সমস্ত দোকান ছিল সেগুলো যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। এক্ষেত্রে দক্ষিণ 24 পরগনার বেহালা ফায়ার ব্রিগেডও সল্টলেক ফায়ার ব্রিগেড ও উত্তর 24 পরগনা ফায়ার ব্রিগেড এর দমকলকর্মীরা পুরো আগুনটাকে নিয়ন্ত্রণে আনে।

শেয়ার করুন