মাধ্যমিক উত্তীর্ন ছাত্রীর পড়াশুনার খরচ বহনের কথা দিলেন বিধায়ক


জেলা সংবাদদাতা,পুরুলিয়া: বাঘমুন্ডি থানার ভূপতিপল্লী গ্রাম টি বিরহর জনজাতির বসবাস ঠিক এই গ্রামের এবৎসরের একমাত্র ছাত্রী জবা শিকারী মাধ্যমিক পাশ করেছেন ৷ অভাবী সংসারের মেয়ে জবার বাবা ছোটবেলায় মারা যান ৷
মা দিনমজুরের কাজকরে মেয়েকে মাধ্যমিক পাস করিয়েছে ৷ খবর পেয়ে বিধায়ক নেপাল মাহাতোর দেরি না করে পৌঁছে গেলেন জবার গ্রাম ভূপতিপল্লীতে ৷ বিধায়ক ছাত্রীকে সংবর্ধনা ও মিষ্টিমুখ করানোর পর জানান, তার যতদূর পড়ার ইচ্ছা পড়ুক সমস্ত খরচ সামলাবেন বিধায়ক ৷
নেপাল বাবু জানান আমার বিধান সভা এলাকায় এক এইরকম পরিবারের মেয়ে মাধ্যমিক পাস করেছেন ৷ অভাবের সংসারে খুব সংগ্রামকরে নিজের জীবিকা নির্বাহকরে শুনেছি ৷ তার বাবা নেই এবং সে যে কষ্ট করে মাধ্যমিক পাস করেছে ও পড়ার যে একটা প্রবল ইচ্ছা সেই ইচ্ছাটার প্রতি সন্মান দিয়ে আমি বলেছি,যাতে আর্থিক অসুবিধা না হয় তার জন্য সকল রকম সাহায্য করা হবে ৷ এবং এই রকম পরিবারের মেয়ের যে পড়াশুনার ইচ্ছা ও পড়াশুনার চেষ্টা করে যাচ্ছে তারজন্যে তাকে অভিনন্দন জানাই ৷ তাকে দেখে অনুপ্রেরিত হয়ে এই সম্প্রদায়ের মেয়েরা আরও বেশি করে পড়াশুনা করুক এবং সমাজটাকে উন্নত করবে এটাই আমি চাই ৷
এবিষয়ে জবা জানান বাবা ছোটবেলায় মারা গেছে
মা দিনমজুরের কাজ করে আমাদের পড়াশুনা ও সংসার চালায় ৷ আমরা তিন বোন ৷ আমি পন্ডিত রঘুনাথ মুর্মু আদর্শ আবাসিক বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক পাশ করেছি ৷
আমি আরও পড়তে চাই ও নার্স হয়ে মানুষের সেবা করতে চাই ৷
অপরদিকে বিধায়ককে পাশে পেয়ে জবাও বেজায় খুশি কারণ পড়াশুনায় আর কোনো বাধা থাকলোনা৷

শেয়ার করুন