মালদহে লকডাউন সিদ্ধান্ত নিয়ে ব্যবসায়ীমহলে গোষ্ঠী কোন্দল


নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদহ: নতুন লকডাউন সিদ্ধান্ত নিয়ে ব্যবসায়ীমহলে শুরু হলো গোষ্ঠী কোন্দল। কিছু দোকান আংশিক সময়ের জন্য খোলা কিছু দোকান আবার পুরোপুরি বন্ধ। মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অব কমার্সেরের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন বেশ কিছু ব্যবসায়ী সংগঠন। এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে ইতিমধ্যে জেলাশাসকে লিখিতভাবে জানিয়েছেন মালদা ক্লথ মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশন।
উল্লেখ্য, করোনার গোষ্ঠী সংক্রমণ রুখতে মালদা জেলা প্রশাসনের তরফে সোমবার মালদা জেলা প্রশাসনিক ভবনে একটি বৈঠক ডাকা হয়েছিল। সেখানে উপস্থিত ছিলেন মালদা জেলা শাসক,মালদা পুলিশ সুপার সহ ব্যবসায়িক মহলের প্রতিনিধিরা। সেই মিটিং এ সিদ্ধান্ত হয় বুধবার 7 তারিখ থেকে মালদা জেলার ইংরেজবাজার পৌরসভা ও পুরাতন মালদা পৌরসভার লকডাউন আরো কঠোরভাবে পালন করা হবে। তা শুনে অন্যান্য ব্যবসায়ীরা মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অব কমার্সের সম্পাদক জয়ন্ত কুন্ডু এবং উত্তম বসাকের বিরুদ্ধে সরব হন। মালদা ক্লথ মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সম্পাদক বিভাস চক্রবর্তী
অভিযোগ একতরফা সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অব কমার্সের সম্পাদক জয়ন্ত কুন্ডু এবং যুগ্ম সম্পাদক উত্তম বসাক। নিজেদের ডিস্ট্রিবিউশন ব্যবসা বজায় রাখার জন্য চেম্বারের ক্ষমতা অপব্যবহার করে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। অন্যান্য বাজার কমিটির সাথে কোন রকম আলোচনা করছেন না। যদি বন্ধ রাখতে হয় তাহলে সমস্ত দোকানপাট বন্ধ রাখা হোক। গোষ্ঠীসংক্রমণ ছড়াচ্ছে সমস্ত বাজার ঘাট থেকেই কারণ সেখানে সবথেকে বেশি ভিড় হয়। আমরা সমস্ত সরকারি নিয়ম মেনে দোকান খুলছি এবং দোকান বন্ধ করছি। বুধবার বিষয়টি তারা লিখিতভাবে জেলাশাসককে জানিয়েছেন। জেলাশাসক তাদের আশ্বস্ত করেছেন বিষয়টি চিন্তাভাবনা করে দেখার।

শেয়ার করুন