মুখ্যমন্ত্রীর অনুপ্রেরনায় মাছ চাষের অত্যাধুনিক পরিকাঠামো পশ্চিম মেদিনীপুরে


নিজস্ব সংবাদদাতা,পশ্চিম মেদিনীপুর: মাছ চাষের অত্যাধুনিক পরিকাঠামো গড়ে উঠলো পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশিয়াড়ী ব্লকে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর অনুপ্রেরণায় ও পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার তফসিলি জাতি, আদিবাসী অনগ্রসর শ্রেণি উন্নয়ন দপ্তরের সহযোগিতায় এই প্রথম কেশিয়াড়ী ব্লকে কুসুমপুর ৪ নং অঞ্চলের শালডাঙা উত্তরণ আদিবাসী স্বসহায়ক দলকে ১০ হাজার মাছের চারা দেওয়া হয়েছে। বায়োক্লপ পদ্ধতিতে মাছ চাষ করে স্বনির্ভর করার লক্ষ্যে ওদের সরকারিভাবে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে পরিকাঠামো তৈরি করা হয়েছে। শুক্রবার সরকারীভাবে বিনামূল্যে স্ব সহায়ক দলকে দেওয়া হয়েছে ১০ হাজার মাছের চারা। তপশিলী জাতিভুক্ত মহিলাদের স্বনির্ভর করতে এই উদ্যোগ বলে জানান উদ্দোক্তারা। বিশেষ পদ্ধতিতে এই মাছ চাষ মহিলারাই পরিচালনা ও দেখভাল করবেন। এরজন্য স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের দেওয়া হয়েছে বিশেষ প্রশিক্ষণ। মাছ চাষের আয় কাজে লাগবে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের সঞ্চয়ের কাজে।এর পাশাপাশি এই আয় থেকে পরবর্তী সময়ে মাছ কেনার ক্ষেত্রে আয়ের কিছুটা অর্থ খরচ করা হবে।মূখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির এই উদ্যোগে খুশি হয়ে শালডাঙা উত্তরন আদিবাসী স্বসহায়ক দলের মহিলারা বলেন যে আমাদের বাড়ির সেরকম সামর্থ্য ছিল না যে নিজেদের থেকে অর্থ ব্যয় করে এই পরিকাঠামো গড়ে তোলার।তাই মূখ্যমন্ত্রীর এই প্রকল্পের মাধ্যমে আমরা অনেকটাই স্বনির্ভর হতে পারবো।এদিনের এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পরিষদের শিক্ষা কর্মাধ্যক্ষা মামনি মান্ডি,পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যা স্বপ্না সাউ, অনিমা দে (রাউৎ ),উত্তরণ আদিবাসী স্বসহায়ক দলের সভানেত্রী ফুলমনি মুর্ম্মু সহ এই গ্রুপের সমস্ত সদস্যারা।

শেয়ার করুন