রাজ্য সরকার ও তৃণমূল কংগ্রেসের তীব্র সমালোচনা করলেন বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা

নিজস্ব সংবাদদাতা, পশ্চিম মেদিনীপুর :-
রবিবার মেদিনীপুর শহরে বিজেপির পশ্চিম মেদিনীপুর জেলাকমিটির কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রীর মন কি বাত অনুষ্ঠানে যোগদান করেন বিজেপির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা রাহুল সিনহা। ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির জেলা সভাপতি সমিত কুমার দাস, বিজেপি নেতা শুভজিৎ রায় ,অরূপ দাস সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মন কি বাত অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা বলেন যেখানে কাটমানি নেই সেখানে তৃণমূল কংগ্রেস নেই । তিনি বলেন কৃষক সম্মান নিধিপ্রকল্পে কাট মানি নেই তাই বাংলায় চালু হতে দেয়নি ,আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পে কাটমানি নেই তাই চালু হতে দেয়নি মমতার সরকার। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্প প্রকল্পে ও শৌচাগার প্রকল্পে কাটমানি রয়েছে তাই এ রাজ্যে চালু করেছে মমতার সরকার। যেখানে কাটমানি নেই সেখানে তৃণমূল কংগ্রেস নেই। যেখানে কাটমানি রয়েছে সেখানেই তৃণমূল কংগ্রেস রয়েছে। তিনি বলেনঝড়ের ত্রাণে দুর্নীতি হয়েছে । রাজ্যের মানুষ জানতে সব কিছুই জানতে পেরেছে। বিজেপিকে কোথাও কোনো কর্মসূচি করতে দেওয়া হচ্ছে না বলেও তিনি অভিযোগ করেন। তিনি বলেন ভার্চুয়াল সভার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বক্তব্য, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বক্তব্য রাজ্যের প্রতিটি মানুষ দেখছেন যার ফলে তৃণমূল কংগ্রেস এখন থেকেই অস্বস্তিতে পড়েছে। পুলিশ ও দুষ্কৃতীরা এক হয়ে বিজেপি কর্মীদের ওপর হামলা করছে। রবিবার পূর্ব মেদিনীপুর জেলার হেড়িয়া এলাকায় বিজেপির এক কার্যকর্তা কে গুলি করা হয়েছে এ জিনিস চলতে পারে না। অপরিকল্পিত ও অপূর্ণ সরকার চলছে বাংলায় বলেতিনি বলেন। এই সময় সরকারি বাস কোথায় বিরোধী রাজনৈতিক দল যখন বন্ধ ডাকে তখন তো হাজার হাজার বাস নামানো হয় এখন সেসব বাস কোথায় গেল। তিনি বলেন বেসরকারি বাস মালিকদের সাথে কথা বলে তাদের সমস্যা মিটিয়ে রাজ্যের মানুষের জন্য মানুষ কে কষ্ট না দিয়ে যাতে রাস্তায় বাস চলাচল করে তার ব্যবস্থা করুক রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর সমালোচনা করে বলেন মুখ্যমন্ত্রী মুখে এক কথা বলেন আর কাজ করেন আলাদা। উনার কাজ আর কথার কোন মিল নেই। তাই তিনি বলেন যে 2021 সালের বিধানসভা নির্বাচনে বাংলার মানুষ পরিবর্তনের পরিবর্তন আনার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন যেভাবে বাংলার মানুষ সিপিএমকে প্রত্যাখ্যান করেছিল তেমনি কাটমানি খাওয়া তৃণমূল কংগ্রেসকে বাংলার মানুষ প্রত্যাখ্যান করার জন্য মানুষ অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন।

শেয়ার করুন