লক ডাউনের জেরে কেউ ‘অভুক্ত’ শুনলেই রাত দিন এক করে পাশে দাঁড়াচ্ছে মেয়েটি

নিশীথ ভূষণ মাহাত, পুরুলিয়া :
করোনা কে ঠেকাতে দেশ জুড়ে চলছে লক ডাউন । গতকাল প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জাতির উদ্দেশ্যে বক্তব্য দিতে গিয়ে সারা দেশে লক ডাউনের মেয়াদ মে মাসের ৩ তারিখ পর্যন্ত বাড়ানোর ঘোষণা করেন । ইতিমধ্যে বিগত ২৩ মার্চ থেকে ১৪ ই এপ্রিল পর্যন্ত ২১ দিনের দীর্ঘ লক ডাউনের জেরে দেশ জুড়ে নানা সঙ্কট দেখা দিয়েছে । এরাজ্যের বিভিন্ন জায়গাতেও একই ছবি দেখা যাচ্ছে । যদিও সরকার সাধারণ মানুষের সমস্যা দূরীকরণের জন্য মরিয়া চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে । খাদ্য সঙ্কট মেটাতে বিনামূল্যে রেশন দেওয়া হচ্ছে সকলকেই । তথাপি কখনও কখনও সংবাদ পত্রে খবর পাওয়া যাচ্ছে অভুক্ত ভাবে দিন কাটছে কারও কারও । এরকম খবর পেলেই চাল ডাল, আলু,সয়াবিন সহ খাদ্য সামগ্রী নিয়ে নিজেই স্কুটিতে ছুটে যাচ্ছে রিয়া ঘোষ নামে জনৈক মেয়েটি । পুরুলিয়া শহরের ওল্ড পুলিশ লাইনের বাসিন্দা রিয়া , বিশাল বড়ো কোন চাকুরী বা ব্যবসা করেন তা নয়, নিজের ছোট একটা আর্ট ইস্কুলে অঙ্কন শিখিয়ে যৎসামান্য আয় করেন । তা দিয়েই দুঃস্থ অসহায়দের পাশে দাঁড়ানো তাঁর অভ্যাসে পরিণত হয়েছে । ইতিমধ্যে পাড়া থানার ফতেপুর, ভেলাইডি, নডিহা , পুরুলিয়া মফঃস্বল থানার জামবাদ, মহাড়া সহ জেলার বিভিন্ন গ্রামের প্রায় পঞ্চাশটি অভাবী পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি । কেউ অভুক্ত হয়ে দিন কাটাচ্ছে শুনলেই নিজের স্কুটিতে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে হাজির হচ্ছেন রিয়া । গতকাল সন্ধ্যায় পুরুলিয়া মফঃস্বল থানার মহাড়া গ্রামের অত্যন্ত অসহায় ডিঙ্গলি মুদি এবং জামবাদ গ্রামের নেপাল কর্মকার নামে এক ব্যক্তিকে সাহায্য করতে এসেছিলেন । দুজনকেই প্রায় আট কেজি করে চাল, ডাল, আলু , তেল সহ অন্যান্য সামগ্রী দিলেন । বললেন ” মানুষ মানুষের জন্য । সাধ্যমত সাহায্য করতে পেরে ভাল লাগছে । আরোও সাহায্য করতে চাই ” । এই দুর্দিনে সাহায্য পেয়ে ভীষণ খুশি নেপাল কর্মকার এবং ডিঙলি মুদি দুজনেই ।

শেয়ার করুন