সার কারখানায় করোনা ভাইরাস এর জেরে শ্রমিক-মালিক দ্বন্দ্ব

নিজস্ব প্রতিনিধি পূর্ব মেদিনীপুর:– হলদিয়া শিল্পাঞ্চল এর একটি সার কারখানায় করোনা ভাইরাস এর জেরে দ্বন্দ্ব শ্রমিক এবং মালিক কর্তৃপক্ষ। করোনা ভাইরাস এর কথা মাথায় রেখে হলদিয়া শিল্পাঞ্চলে কারখানা গুলোতে শ্রমিকদের জন্য লক্ষণ রেখা টানলো কারখানা কর্তৃপক্ষ। শ্রমিকরা যাতে পর পর নিয়ম মেনে ঠিক সেই ভাবেই ভিতরে প্রবেশ করতে পারে দূরত্ব মেনে চলতে পারে তার জন্য কর্তৃপক্ষ লক্ষণ রেখা টেনে রাখলেন এবং ভিতরে ভোটার মুখে সম্পূর্ণভাবে রেখেই কারখানা কর্তৃপক্ষ কারখানা চালু রেখেছে। হলদিয়ার দুর্গাচকে ইন্দরামা নামে একটি সার তৈরীর কারখানা কারখানার শ্রমিক ও কারখানা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে অসন্তোষ দ্বন্দ্ব ।
শ্রমিকদের বক্তব্য যে করোনা ভাইরাস এর জন্য সরকার যেখানে বাড়িতে থাকতে বলেছেন সেখানে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ বাধ্য করছে কাজে যোগদান করতে। সরকারি নিয়মকে তোয়াক্কা করেই তারা কাজ জোর করে চালিয়ে যাচ্ছেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন যে কারখানার শ্রমিকরা যারা কাঁজে না গেলেও তাদের যেন বেতন ঘরে বসে পায় সেই ব্যবস্থা কতৃপক্ষকে একটু দেখতে। কিন্তু এনারা তার বিপরীত প্রতিক্রিয়া করছে বলে শ্রমিকের অভিযোগ। এই ভাইরাসকে মাথায় রেখেই তাদের কাজ চালিয়ে যেতে হবে। শ্রমিকদের বক্তব্য যে তারা এই কাজ হারানোর ভয়ে, করোনা ভাইরাস এত সংক্রমণ হওয়ার মাথায় রেখে তারা বাধ্য হচ্ছে কাজে আসতে, তাদের বাধ্য করানো হচ্ছে কাজে যোগ দিতে।

তাছাড়া শ্রমিকরা আরও অভিযোগ করে যে তাদের সেনিটাইজার ছাড়েন না মেনে এবং ডিস্টেন্স না মেনে তাদেরকে বাধ্য করা হচ্ছে কাজ করতে। যদিও কারখানার কর্তৃপক্ষ এই অভিযোগকে উড়িয়ে দিয়েছেন। তাদের কারখানা কর্তৃপক্ষের বক্তব্য যে তারা এখন যে পরিমাণ শ্রমিক কাজ করতো এমার্জেন্সী বেসিসে ফাইভ পার্সেন্ট শ্রমিককে নিয়ে তারা এখন কাজ করাচ্ছেন। নূন্যতম শ্রমিক দিয়ে তাদের কারখানাটি চালিয়ে দেখেছেন। কারখানার জি ইউনিয়ন রয়েছে ইউনিয়ন ও শ্রমিকের পক্ষে বলছেন। ইন্দরামা সারকারখানায় দুই পক্ষের মধ্যে একটি দ্বন্দ্বে পরিণত হয়েছে।




%d bloggers like this: