সুন্দরবনে কাঁকড়া আহরণে গিয়ে বাঘের হামলায় মৎস্যজীবী নিহত


বাবলু প্রামানিক, দক্ষিণ ২৪ পরগনা :সুন্দরবনে কাঁকড়া আহরণে গিয়ে বাঘের হামলায় নিহত হয়েছে এক মৎসজীবী ৷ নিখোঁজ মৎস্যজীবীর নাম যামিনী মিস্ত্রী(৫২)। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বিকালে প্রত্যন্ত সুন্দরবনের পঞ্চমুখানি ২ নম্বর জঙ্গলে। নিখোঁজ মৎস্যজীবীর বাড়ী সুন্দরবন কোষ্টাল থানার লাহিড়ীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতর লাহিড়ীপুর গ্রামে।
সুন্দরবন জঙ্গলের নদীখাঁড়িতে মাছ কাঁকড়া ধরতে যেতেন মৎস্যজীবি যামিনী মিস্ত্রী ও তাঁর সঙ্গীসাথীরা। ফিরেও আসতেন। অন্যান্য দিনের মতো লাহিড়ীপুর গ্রাম থেকে তিনজন সঙ্গী মিলন মিস্ত্রী,অজিত মন্ডল, ও অসিত মাঝি কে নিয়ে শুক্রবার দুপুর দুটোর দিকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে নৌকা নিয়ে সুন্দরবনের পঞ্চমুখানি ২ জঙ্গলে মাছকাঁকড়া ধরার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়।
এদিন বিকালে সুন্দরবনের নদীখাঁড়িতে যখন সকলে মাছ কাঁকড়া ধরছিলেন ঠিক সেই মুহূর্তে সুন্দরবনের গভীর জঙ্গল থেকে একটি বাঘ বেরিয়ে আসে। লাফ দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে যামিনীর উপর। মুহূর্তে তাঁর ঘাড়ে কামড় দিয়ে পিঠে তুলে নিয়ে সুন্দরবনের গভীর জঙ্গলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে । সঙ্গীকে চোখের সামনে বাঘ আক্রমণ করেছে দেখতে পেয়ে মিলন মিস্ত্রী,অজিত মন্ডল, ও অসিত মাঝিরা নৌকার হাল আর কাঁকড়া ধরার শিক দিয়ে বাঘের সঙ্গে তুমুল লড়াই শুরু করে সঙ্গী কে বাঁচানোর জন্য । ক্ষুধার্থ বাঘের সাথে দীর্ঘক্ষণ লড়াই করে তিন সঙ্গী। বাঘের ভয়ঙ্কর রুদ্রমূর্তির সামনে সঙ্গীকে বাঁচানোর জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েও তাকে উদ্ধার করতে পারেনি ৷ অবশেষে বাঘ তার শিকার কে টানতে টানতে সুন্দরবনের গভীর জঙ্গলে চলে যায়। পরক্ষণে আবার বিপদ হতে পেরে ভেবে তিন সঙ্গী তড়িঘড়ি নৌকা নিয়ে গ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় ৷ যামীনির বাড়িতে দেয়া হলে সেখানে এক মর্মান্তিক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় ৷ এ ঘটনায় মৎসজীবীর পরিবারে বিরাজ করছে শোকের ছায়া ৷

শেয়ার করুন