স্ত্রীর সামনে কুমিরে নিয়ে গেল স্বামীকে একদিন পর মৃতদেহ উদ্ধার

বাবলুপ্রামানিক দক্ষিণ 24পরগনা :
গতকাল 68 বছরের বৃদ্ধ নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে কুমিরের কবলে পড়ে আজ সকালে তার মৃতদেহ উদ্ধার হওয়ায় এলাকায় শোকের ছায়া।
স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে গতকাল স্ত্রীর সঙ্গে পাথরপ্রতিমা ব্লকের গোপালনগর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার দুর্গা গোবিন্দপুর মৌজার বিষ্ণুপদ সাঁতরা(68) মাছ ধরতে গিয়ে ছিল। কুমিরের কামড়ে মারা যায় সে।
পেশায় দুস্থ মৎস্যজীবী বিষ্ণুপদ সাঁতরা সংসার চালানোর জন্য বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে জগদ্দল নদীতে মাছ ধরতে দিনের-পর-দিন বলে জানা গিয়েছে। প্রতি দিনের নেয় স্ত্রীর সঙ্গে গতকাল সকালে জাল নিয়ে নদীতে যায়। যখন নদীতে নেমে জাল তুলছিল হঠাৎ একটি কুমির তাকে ধরে মাছ সমুদ্রে নিয়ে যায় বলে জানা যায়। স্ত্রী তখন উপরে দাঁড়িয়ে রয়েছে মাছের আশায় তার সামনের নদীতে টেনে নিয়ে চলে যায় কুমির চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করে স্ত্রী দূরত্বের অন্য মৎস্যজীবীরা জাল দিচ্ছিল চিৎকার চেঁচামেচি শুনে তারা চিৎকার করে এলাকার মানুষদের ডাকে ততক্ষণে সবশেষ কুমির নিয়ে মাঝ সমুদ্রে চলে গিয়েছে খবর দেওয়া হয় পাথরপ্রতিমা থানায় পাথরপ্রতিমা থানার ওসির নির্দেশে থানা লঞ্চ নিয়ে সমুদ্রে যাওয়া হয় কিছুক্ষণ পরে বিডিও অফিসের লঞ্চ পৌঁছায় সেখানে এখনো পর্যন্ত খোঁজ চলছে বলে জানা যায় তবে লঞ্চ যাত্রীদের কাছ থেকে জানা গিয়েছে কমিটি মাঝেমধ্যে মৃতদেহ নিয়ে উপরে উঠছে এবং ডুবে যাচ্ছে অভিজ্ঞ বনদপ্তর এর কাছ থেকে জানা যায় যতক্ষণ না মৃতদেহ কুমির ছেড়ে দিচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত ঐ মৃতদেহ পাওয়া সম্ভব নয়। নদীতে ভাটার পর প্রথম জোয়ারের মুখে কিছুটা দূরে দ গিয়ে ওই মৃতদেহ পাওয়া সম্ভব। জন্য অপেক্ষা করতে হবে কমপক্ষে সন্ধ্যা পর্যন্ত। সারাদিন রাত্রি অপেক্ষা করার পর আজ সকালে হঠাৎ মৃতদেহটি যেখান থেকে কুমির ধরে ছিল সেইখানে পাওয়া যায়। আজ তাকে ময়নাতদন্তে পাঠানো হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

শেয়ার করুন