হাওড়া জেলায় মাধ্যমিকে ৬৭৭ পেয়ে চমক আমতার পবিত্রর


প্রসেনজিৎ পান্ডা,আমতাঃ গত বুধবার ২০২০ মাধ্যমিকের ফল প্রকাশিত হয়েছে এরাজ্যে। দরিদ্রতা ভুলে পড়াশোনার অদম্য যেদকে হাতিয়ার করে মাধ্যমিকে ৬৭৭ পেয়ে জেলার মধ্যে মেধা তালিকায় স্থান করে নিয়েছে গ্রামীণ হাওড়ার আমতা ১ নং ব্লকের ভান্ডারগাছা গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত জঞ্জালীচক গ্রামের দরিদ্র ব্রাহ্মণ পরিবারের সন্তান পবিত্র চক্রবর্তী। শিবের হানা উচ্চবিদ্যালয়ের ছাত্র পবিত্রর বাবা মলয় চক্রবর্তী পেশায় পুরোহিত,মা গৃহবধূ। দাদু ছোট্ট একটি দশকর্মার দোকান ও পূজায় পুরোহিত কর্ম করে যেকোনো প্রকারে চালান সাতজনের সংসার। কিন্তু এই হত দরিদ্র পরিবারে স্বপ্নের রেজাল্ট হওয়ায় সমস্যা সম্মুখীন পরিবারের কর্তা দাদু ভূমিষ্ট চক্রবর্তী। পবিত্রর দাদু বলেন ” পবিত্র আমার ভাঙা ঘরে চাঁদের আলো নিয়ে এসেছে। ষষ্ঠ শ্রেনী থেকে ভালো রেজাল্ট করত বলে শিক্ষক মহাশয় ওকে গাইড করার পাশাপাশি সমস্ত রকম সহযোগিতা করত। এখন বিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা করে ডাক্তার হতে চাইছে,কী করবো ভেবে পাচ্ছি না। দেখা যাক ঈশ্বর আর আপনাদের সকলের আশির্বাদ ওকে বড়ো হতে সাহায্য করুক “।
শিবেরহানা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাপস শিলের দাবি ” প্রান্তিক গ্রামীণ এলাকার হত দরিদ্র পরিবারের সন্তান পবিত্র। প্রথম থেকেই দেখে বিশ্বাস জন্মেছিল যে ভালো রেজাল্ট করবে। কিন্তু জেলার পাশাপাশি রাজ্যের পনেরো নম্বরে মধ্যে মেধা তালিকায় স্থান পাবে ভাবতেও পারিনি। ওর পড়াশোনার জন্য আমরা শিক্ষকরা সর্বদা পাশে থাকবো “।
শুক্রবার সকালে পবিত্র জঞ্জালীচকের বাড়িতে পৌঁছে যান হাওড়া জেলা গ্রামীণ বিজেপির প্রাক্তন জেলা সভাপতি অনুপম মল্লিক। পুষ্পস্তবক দিয়ে অভিনন্দন জ্ঞাপনের পাশাপাশি সর্বদা পাশে থেকে সমস্ত রকম সহযোগিতার আশ্বাস দেন তার বাবা ও মাকে।

শেয়ার করুন