বাজি ফাটানো আটকাতে লালবাজারের’ব্ল্যাক স্পট’নজরদারী

কলকাতা: দিওয়ালি এলেই যে সব জায়গা গুলোয় নিষিদ্ধ বাজি ব্যবহার বেড়ে যায়। সেইসব জায়গাগুলোতে এবার পুলিশি নজরদারি বাড়ানো হবে।
আদালতের নির্দেশ মেনে এই বছর কালীপুজো-দিওয়ালিতে বাজির উপদ্রব রুখতে সংলগ্ন থানাগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। লালবাজার থেকে পাঠানো হয়েছে আলাদা সতর্কবার্তা। এর আগে যেইসব আবাসন এরিয়া গুলো থেকে অভিযোগ বেশি এসেছে, সেখানকার বাসিন্দাদের সঙ্গে করা হবে বৈঠক এবং থানা থেকে সেই বৈঠকের রেকর্ডিংও করতে হবে। এমনকি বাজার সংলগ্ন এরিয়া, আবাসন, পাড়াতেও পুলিশের প্রচার চালাতে হবে। কেউ নির্দেশ অমান্য করলে তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার কথাও বলা হয়েছে লালবাজার থেকে।
প্রসঙ্গত কলকাতা পুলিশ ও পশ্চিমবঙ্গ দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ সূত্র থেকে খবর, বিগত দু’বছর যেসব জায়গায় অত্যধিক বাজি পোড়ানো হয়েছিল, অর্থাৎ ব্ল্যাকস্পটগুলি হলো: টালিগঞ্জ, বালিগঞ্জ, লেক গার্ডেন্স, পাটুলি, যাদবপুর, বেহালা, বাগবাজার, এন্টালি, ফুলবাগান, চিৎপুর ও কাশীপুর। এইসব জায়গাগুলিতে নজরদারি বাড়ানো হবে।
আদালতের নির্দেশ অমান্য করলে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৮৮ ধারার পাশাপাশি বিস্ফোরক আইনেও মামলা রুজু করছে কলকাতা পুলিশ। কালীপুজো এবং দিওয়ালির রাতটাই বড়ো চ্যালেঞ্জ পুলিশের কাছে। বাজি আটকানোর জন্য ৯টি ডিভিশনে ১১৪টি গাড়ি বা অটোরিকশায় গলিঘুঁজিতে বাজির উপদ্রব রুখতে বাড়তি নজরদারি চালানো হবে। প্রতিটি অটোরিকশা বা গাড়িতে দু’জন পুলিশকর্মী থাকবেন। তা ছাড়া, ১৮টি বিশেষ মোবাইল পেট্রলিংয়ের ব্যবস্থাও করা হবে।

শেয়ার করুন