করোনায় মৃত ব্যাক্তি শ্রাদ্ধের দিন ফিরলেন বাড়ি, স্বাস্থ্যদপ্তরে তোলপাড়

স্টাফ রিপোর্টার : এ যেন ঠিক সিনেমায় দেখা গল্প ৷ তবে গল্প হলেও একদম সত্যি । করোনায় মৃত ব্যাক্তি হেঁটে বাড়ি ফিরলেন শ্রাদ্ধের আগের দিন। উত্তর ২৪ পরগণার বিরাটির ঘটনা ৷ এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায় ৷

বিরাটি এলাকার শিবনাথ ব্যানার্জি করোনা আক্রান্ত হলে তাকে গত ১১ নভেম্বর খড়দহ থেকে বারাসাতের এক সংশ্লিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১৩ নভেম্বর হাসপাতাল কতৃপক্ষ জানায় মৃত্যু হয়েছে শিবনাথের । মৃতকে হাসপাতালের তত্ত্বাবধানে শেষকৃত্য সম্পন্ন করতে হবে । কিন্তু, স্বাস্থ্যবিধি মেনে শেষবারের মত দূর থেকে পরিবারকে দেখানো হয়েছিল মৃতদেহ ।

তার পরই হবিষ্যি খেয়ে নিয়ম কানুনের সবটাই মেনে শ্রাদ্ধঅনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় । শুক্রবার দিন সবে আসতে শুরু করেছে আত্মীয় স্বজন। বাড়ির ছাদে সাদা কাপড়ের প্যান্ডেল তৈরী প্রায় শেষ । পরিবারের চোখ স্বজন হারানোর বেদনায় জল ।
এমন সময় হঠাৎ ফোন বাজল। বারাসাতের জি এন আর সি হাসপাতালের ফোন । ফোনের ওপাশ থেকে বলতে শোনা গেল, “আপনার রোগী সুস্থ হয়ে গিয়েছে, অ্যাম্বুলেন্সে করে তাঁকে বাড়ি পাঠানো হচ্ছে”।
শ্রাদ্ধের কাজে ছেলে তখন ব্যস্ত। বুঝতে পারছিলেন না ব্যাপারটা আসলে কি ঘটেছে । অধীর আগ্রহে অ্যাম্বুলেন্সের অপেক্ষা করতে থাকে তারা ৷ অবশেষে পায়ে হেঁটে ঘরে ঢুকলেন শিবনাথ ব্যানার্জি ৷

হাসপাতাল সূত্রের খবর , ওই একই দিনে মোহিনী মোহন গোস্বামী নামের আরেক ব্যাক্তিও ওই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ৷ তিনি সেখানেই হঠাৎ মারা গিয়েছেন ৷ কিন্তু হাসপাতাল কতৃপক্ষ ভূল করে ‘মৃত ব্যাক্তিকে’ বিরাটির শিবনাথ ব্যানার্জি মনে করে তার বাড়িতে মৃত্যুর খবর জানায় এবং শেষকৃত্য সম্পন্ন করে ৷
কিন্তু রোগী সুস্থ হওয়ার পর রোগী অ্যাম্বুলেন্সে উঠেই চালককে বলেন বিরাটি যাব ৷ তারপরই আসল ঘটনা প্রকাশ্যে আসে ৷ তখনই বোঝা যায় ১৩ নভেম্বর যিনি মারা গিয়েছিলেন তিনি ছিলেন মোহিনী মোহন গোস্বামী। অন্যদিকে, গোস্বামী পরিবারকে যে রোগীর সুস্থ হওয়ার খোঁজ দেওয়া হচ্ছিল তিনি ছিলেন করোনা জয়ী শিবনাথ ৷

হাসপাতালের এমন দায়িত্বজ্ঞানহীন কান্ডে সব মহলেই পারদ চড়ছে ৷ ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই নড়েচড়ে বসেছে স্বাস্থ্য দপ্তর ৷ ঘটনার পরপরই করোনায় মৃত্যু বিভ্রাট নিয়ে উত্তর ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসনের কাছে রিপোর্ট তলব স্বাস্থ্য ভবন ৷
এই ঘটনায় ৩ জনের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কাজে গাফিলতির জন্য দোষীদের চিহ্নিত করে কড়া শাস্তি দেওয়া হবে বলে স্বাস্থ্য দপ্তরের একটি সূত্র জানিয়েছে ।

শেয়ার করুন