বিহার ভোটের প্রচারে গুরুত্ব পেলেও বিধানসভা প্রতিনিধিত্বে পিছিয়ে মুসলিম প্রার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদন:বিহার নির্বাচনের শুরুর সময় থেকেই বারবার মিডিয়ার আলোচনায় গুরুত্ব পেয়েছে মুসলিম ভোটের সমীকরণ। মুসলিম ও দলিত ভোটের কথা মাথায় রেখে বিহারে তৃতীয় ফ্রন্ট তৈরি করেছে আসাদউদ্দিন ওয়েইসির এআইএমআইএম এবং মায়াবতীর বিএসপি।মুসলিম ভোট নিজেদের ঝুলিতে টানতে নিজেদের ঘর সাজিয়েছে আরজেডি ও। বার বার প্রচারে এসেছে সংখ্যালঘুদের ভরসা হারাচ্ছে নীতীশের দল, বদলাচ্ছে রাজনৈতিক সমীকরণ,কিন্তু দিনের শেষে বিধানসভার ভেতরে দাগ কাটতে পারলো না মুসলিম প্রতিনিধিত্ব বরং মোট জনসংখ্যার ১৭ শতাংশ মুসলিম হলেও বিহারের বিধানসভায় ১৯টি আসনে জয়ী হলেন মুসলিম বিধায়করা যা গতবারের চেয়ে ৫ টি কম।

এবারের ভোটে RJD থেকে জিতেছেন সর্বাধিক ৮ জন বিধায়ক। অপর মুসলিম রাজনৈতিক দল আসাদউদ্দিন ওয়াইসির মজলিশ-ই-ইত্তেহাদুল মুসলেমিন (মিম) থেকে নির্বাচিত হয়েছেন মোট ৫ জন বিধায়ক ৷

এর আগে বিহার রাজ্যসভা ভোটে ২০১০ সালে ১৬ জন মুসলিম বিধায়ক এবং ২০১৫ সালে মোট ২৪ জন মুসলিম প্রার্থী বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছিলেন।

এবারে কংগ্রেস থেকে মোট নির্বাচিত হয়েছেন মোট ৪ জন । এছাড়া একজন করে মুসলিম বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন অপর দুটি দল সিপিআইএম এবং বিএসপি থেকে ৷ বিধানসভা ভোটে জেডিইউ ১১ মুসলিম প্রার্থীকে টিকিট দিয়েছিলেন ৷ তাদের মধ্যে একজনও জয়ী হতে পারেননি।

শেয়ার করুন