একুশের ভোট নিয়ে বাংলায় রাজনীতির পারদ বাড়ছে, তর্জমায় মিম

শাশ্বতী রায়চৌধুরী: উৎসবের মৌসুম শেষ হতে না হতেই ভোটের তোড়জোড় শুরু হয়ে গিয়েছে ৷ যুদ্ধকালীন তৎপরতায় বিভিন্ন ধরনের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে রাজনৈতিক দলগুলি ৷ ২০২১ মানে বাংলার ভোটের বছর। একদিকে কেন্দ্রীয় নেতারা একের পর এক আসছেন। তারা বারবার বিভিন্ন জায়গায় সভা করছেন,রাজ্যের নেতাদের গাইডলাইন দিচ্ছেন।

তৃণমূল তাদের বিগত সময়ের উন্নয়নকে ভোটযুদ্ধের অস্ত্র  বানিয়ে প্রচার প্রচারণা করছেন ৷ এদিকে বাম কংগ্রেস জোট নিয়েও ইতিমধ্যে বৈঠক করেছে ৷ তবে ঠিক কিভাবে গাঠবন্ধন হবে বা শরীক দলগুলোর বা কি হবে,তা এখনো সঠিকভাবে বলা যাচ্ছেনা ৷

এই মুহূর্তে রাজ্য রাজনীতিতে সবথেকে তর্জমা হচ্ছে আসাদউদ্দিন ওয়েইসির দল AIMIM বা  মিমের ৷ বিহারের ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর  এই শব্দ টা আরো বেশি করে এই মুহূর্তে প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠেছে ৷ বিশ্লেষকরা বলছেন, আগামী একুশের  নির্বাচনে বাংলায় মিম AIMIM এর প্রভাব পড়তে পারে। বিহারে ১.২৪% ভোট পেলেও কার্যত মহাজোটের মুখের গ্রাস করেছে মিম, পাঁচটি আসনে জয় পেয়েছে ওয়াইসির দল, বাংলা সীমানা ঘেঁষা এই আসনগুলির আগে আরজেডি, কংগ্রেসের দখলে ছিল।

বিহারে ১৭% মুসলিম ভোটব্যাংকে কার্যত একচেটিয়া দাপট ছিল লালুর দলের। সেই ভোটব্যাংকে ফাটল ধরিয়ে কুরশির অঙ্ক বদলে দিয়েছে মিম। উত্তর দিনাজপুরে ৯ আসনেই প্রার্থী দিতে চায় মিম। মালদহ সহ অন্য জেলাগুলোর আসনে প্রার্থী দিতে আগ্রহী তারা ৷ যদিও বিরোধী দলগুলো থেকে ক্রমাগত তোপ মিম কে নিয়ে ৷

তবে রাজনৈতিক জল্পনার পারদ যতই বাড়ুক বর্তমান ক্ষমতাসীন তৃণমূল এবং প্রতিপক্ষ বিজেপির সাথে টক্কর দিয়ে বাংলার মসনদে ঠিক কি রকম দখল করতে পারবে সেটাই এখন দেখার ব্যাপার ৷

শেয়ার করুন