সময় হলে হিসাবটা বুঝে নেবো: তৃণমূল নেতা কল্যান বন্দোপাধ্যায়

নয়না দত্ত,কলকাতা: কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় নিশানায় ফের মেদিনীপুরের তৃণমূল নেতা শুভেন্দু অধিকারী। তবে শুভেন্দু অধিকারীর নাম উহ্য ছিল তার ভাষণে। বৃহস্পতিবার একটি অনুষ্ঠানে বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় না থাকলে পুরসভার কাছে আলু বিক্রি করতিস। বৃহস্পতিবার কটুক্ষ ভাষায় নাম না নিয়ে শুভেন্দু কে নিশানা করেছেন শ্রীরামপুরের তৃণমূল সাংসদ এবং বলেছেন সময় হলেই হিসাবটা বুঝে নেবো। এছাড়া বলেছেনঃ কংগ্রেসে যাবি চলে যা।বি জে পি তে যাবি চলে যায়। সি পি এম এ যাবি চলে যা, কোন অসুবিধা নেই । তৃণমূল কংগ্রেস করে তৃণমূলের সাথে বেইমানি করলে ঘরে ঢুকতে দেবো না। দাদার অনুগামী হয়ে দাদার দলে যেতে চাইলে যেতে পারিস কোন অসুবিধা নেই। বাংলার মাটিতে দেখতে চাই কোন দাদার কত অনুগামী রয়েছে?দেখতে চাই কার কত হিম্মত রয়েছে? এসেছি লড়াই করতে,লড়াই করেই যাবো।শেষ পর্যন্ত দেখে নেব। আগামী দিনে বেঈমানদের বুঝিয়ে দেবো।লড়াইয়ের ময়দানে এক ইঞ্চিও ছাড়বোনা জীবন থাকতে।
বেশ কয়েকদিন আগে কল্যাণ বলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছিলেন বলেই নন্দীগ্রামে আন্দোলন হয়েছে।আজকের দিনে তিনি অনেক বড় হতে পারেন, কিন্তু বড় হয়েছেন কাদের ছত্রছায়ায় সেটাই বড় ব্যাপার। কল্যান এও বলেন,মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছত্রছায়ায় বড় হয়েছিস,চারটে মন্ত্রিত্ব পেয়েছিস, চারটে সিটে আছিস। পেট্রল পাম্প অনেক গুলো করেছিস।মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় না থাকলে, “মিউনিসিপ্যালিটিতে আলু বিক্রি করতে হতো”। এছাড়াও ঘাটালের সভায় তিনি বলেছেনঃ “দেখবি জ্বলবি আর লুচির মতন ফুলবি”।

শেয়ার করুন